স্বাধীন দেশে এমন পুলিশ বাহিনী চেয়েছিলেন আপনি? চেয়েছিলেন এমন প্রশাসন?

স্বাধীন দেশে এমন পুলিশ বাহিনী চেয়েছিলেন আপনি? চেয়েছিলেন এমন প্রশাসন? নাগরিকের সাথে তুইতোকারি করার সাহস তারা কোথায় পেয়েছে? ‘এই তুই কানধর’ বলার সাহস কোথায় পেয়েছে? জনগণ কোন অন্যায় করলে, আইন অমান্য করলে রাষ্ট্রীয় আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে। এবিষয়ে কেউ প্রশ্ন তুলবে না।

আর ইতোমধ্যে রাস্তাঘাট পুরোপুরি ফাঁকা, দোকানপাট সব বন্ধ, শুধু নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের কিছু দোকান ও ফার্মেসি খোলা আছে। সরকারের অনুরোধে দেশের সকল মানুষ স্বতস্ফূর্তভাবে সাড়া দিয়েছে। যদিও সরকার ১৪৪ ধারা জারি করেনি, জরুরি অবস্থা জারি করেনি, জাস্ট মানুষকে অনুরোধ করেছে বাইরে না যাওয়ার জন্য। আমি আবারও বলছি, জাস্ট অনুরোধ করেছে।
তাহলে জনগণকে এভাবে হেনস্তা করা হচ্ছে কেন? যারা একান্তই বাইরে যাচ্ছে , তারা কোন না কোন কাজে যাচ্ছে।

আর মাস্ক সম্পর্কে আপনাদের কি ধারনা আছে? ঐ কাপড়ের মাস্কে কোন ভাইরাস বা ধূলিকণা প্রতিরোধ করেনা, মাত্র ৫০% ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে!
সাধারণ জনগণের ব্যবহারের জন্য সার্জিক্যাল মাস্ক বা FFP1 মাস্ক দরকার, যা ৯৫% ভাইরাস, ৮০% ব্যাকটেরিয়া, ৮০% ধূলিকণা প্রতিরোধ করে, কিন্তু এই মাস্ক বাজারে পাওয়া যাচ্ছে না।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও প্রশাসনের যেখানে মাস্কের বিষয়ে ন্যূনতম জ্ঞান নেই, সেখানে ঐ মাস্ক কই, মাস্ক কই বলে কানধরায় কিভাবে?

অথচ প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক খ্যাতিমান মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবিএম আব্দুল্লাহ স্যার তো প্রতিদিন মিডিয়ায় বলছেন, সুস্থ মানুষের মাস্ক ব্যবহার জরুরি না, দরকার নাই।

এই পুলিশ বাহিনীর বেতন হয় কার টাকায়? এই পুলিশ বাহিনীর সংসার চলে কার টাকায়?
রাষ্ট্রের মালিক জনগণ, অথচ মালিকের সাথে সেবকের এই আচরণ! ধিক্কার জানাই…..
এবিষয়ে বঙ্গবন্ধু বলেছে গেছেন, “আপনি চাকরি করেন, আপনার মাইনা দেয় ঐ গরীব কৃষক। আপনার মাইনা দেয় ঐ গরীব শ্রমিক। আপনার সংসার চলে ঐ টাকায়। আমরা গাড়ী চড়ি ঐ টাকায়। ওদের সম্মান করে কথা বলুন, ইজ্জত করে কথা বলুন। ওরাই মালিক ওদের দ্বারাই আপনার সংসার চলে।”

Related posts

Leave a Comment