বেগম খালেদা জিয়াকে যে কারণে ৬ মাসের মুক্তি দিল সরকার

আইনি প্রক্রিয়ায় নয়, বেগম জিয়ার মুক্তি নির্বাহী আদেশে। ফাইল আইন মন্ত্রণালয় থেকে ঘুরে এখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালায়ে আছে। আবারও প্রমাণিত হলো বিচার বিভাগের স্বাধীনতা।
কোন বিচারকের মুরোদ ছিলো না বেগম জিয়ার জামিন দেওয়া, অবশেষে সরকারের দয়ায় শর্তসাপেক্ষে ৬ মাসের মুক্তি!
বেগম জিয়াকে আগে কেন মুক্তি দেওয়া হয়নি?
এখন কেন তাকে মুক্তি দেওয়া হলো?

১। তার মুক্তির পর নিশ্চয় নেতাকর্মীরা তাকে দেখতে আসবে। করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়লে বলা সহজ হবে বিএনপির জনসমাগমের কারণে করোনা ভাইরাস বেড়ে গেছে।

২। এমন সময় তাকে মুক্তি দেওয়া হলো, যখন বিএনপি আন্দোলন করতে পারবেনা। আন্দোলন করলে জনসমাগম হলে করোনার দায় বিএনপির উপর চাপাতে সহজ হবে।

৩। অবশ্যই বেগম জিয়ার মুক্তির বিষয়টি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ফলাও করে প্রচার হতো, কিন্তু এমন সময় তাকে মুক্তি দেওয়া হলো যখন বিশ্ব মিডিয়া করোনা নিয়ে ব্যস্ত।

৪। করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলের মধ্যে বেগম জিয়া মারা গেলে সরকারের উপর আলাদা চাপ সৃষ্টি হতো, আর এখন জেলের বাইরে মারা গেলে সেই চাপ সরকারের কিছু করতে পারবেনা।

৫। শোনা যায় বেগম জিয়া মারাত্মক অসুস্থ, উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়া জরুরি, কিন্তু এখন বিদেশ নিয়ে উন্নত চিকিৎসার কোন সুযোগ নেই। কারণ আন্তর্জাতিক যোগাযোগ এখন মুখ থুবড়ে পড়েছে।

৬। আকস্মিকভাবে খালেদা জামিন করোনা ভাইরাসের মধ্যে একটা নতুন ইস্যু। সংবাদমাধ্যম এটা নিয়ে গরম থাকবে। এছাড়া বিএনপি এখন করোনা ভাইরাস মোকাবেলার জন্য যতোটা কাজ করবে, বেগম জিয়াকে নিয়ে তারচেয়ে বেশি ব্যস্ত থাকবে। এতে মানুষকে বোঝাতে সহজ হবে বিএনপি জনগণের দল নয়। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় তাদের কোন মনোযোগ নেই। তারা তাদের নেত্রীকে নিয়ে বিজি আছে।

Related posts

Leave a Comment